Tuesday, August 14, 2018

Jhore Pora Short Film Stories (ঝরে পড়া)


"ঝরে পড়া"    ২৩-৯-২০১৫  "প্রাইমারি শেষ করেছি। মাধ্যমিকে ভর্তি হয়েই তার সাথে দেখা হবে ভাবিনি। প্রাইমারিতে তার ভাল রেজাল্ট ছিল। তাই বলে যে মাধ্যমিকে ভাল হবে তার গ্যারান্টি কে দেবে? তার জীবনে সেটাই ঘটেছিল। আমি কখনো ভাবিনি তার এমন রেজাল্ট হবে। "  " আমাদের প্রেমটা ক্লাস সিক্স থেকে নয়। কারণ তখন জানতামই না প্রেম কি জিনিস? ক্লাস এইটে তাকে কিছুটা ভালো লাগতে লাগল। বলতে পারবনা সেটা লাভ না অ্যাট্রাকশন । কিন্তু ভাবতাম সে আমার জীবনের কিছুটা অংশ জুড়ে রয়েছে। ভাবতে ভাবতে কখন যে তাকে আর ও ভাল লাগতে লেগেছে তা বলতে পারবনা । ২ বছর তার সাথে ভাল ত দুরের কথা কোন কথাই বলতাম না । কেমন যেন মনের মধ্যে ধাড়াক ধাড়াক করত। এভাবে চলে গেল ২ টা বছর। ক্লাস এইটে তার চেয়ে বেশি পড়া লেখাই ভাল ছিলাম। তাই তাকে সাহায্য করতে চাইতাম। কিন্তু সে কখনো আমার সাথে কথাই বলতে চাইত না । সে ক্লাসের সবার চাইতে আলাদা ছিল। ক্লাস এইটে যখন বৃত্তি পরীক্ষা দিলাম তখন তার সাথে কিছুটা মিশতে পেরেছিলাম । সে প্রাইমারিতে ভাল ছিল। কিন্তু মাধ্যমিকে কি যে হল তার বলতে পারবনা। আমার কাছে ফোন ছিলনা । তাই তাকে ফোন করতে অনেক কষ্ট হত । তার কাছে ফোন ছিল । তার সাথে কথা বলতে খুব ভাল লাগত। জানি না এতেই মনে হয় প্রেমের বীজ নিহীত ছিল। তাকে ফোন করার জন্য কারো ফোন ধার করতাম। মনে হত তার সাথে এভাবে সারা জীবন কথা বলে যায়। আমার সব চায়তে ভাল লাগত তার সাথে কথা বলতে । দেখতে দেখতে আমাদের বৃত্তি পরীক্ষা দরজায় কড়া নাড়ছে । পরীক্ষা দিলাম । দুই জন ই বৃত্তি পেলাম । যদিও আমাদের বৃত্তির ধরণ আলাদা ছিল । ক্লাস নাইনে উঠালাম । আমার রোল ১ হল। তার ২। আমার খুব গর্ভ হত ।  " আমি ভাল পড়াশুনা করিনি তাই তুমি ভাল রেজাল্ট করেছ।" ,সে আমাকে বলত। আমি বললাম , " তুমি ভাল পড়শুনা করনি কেন?" ও নিশ্চুপ। তার এমন ভঙ্গিতে একটুখানি হাসি খুঁজে পেতাম তার মুখে, তার ঠোঁটে।  আমদের জীবনটা এভাবে ভাল চলছিলো । হঠাৎ , কি যে হল তার । সে কিছু মাসের জন্য বাইরে চলে গেল। তার বাবা তাকে বাইরে পাঠিয়েছিল। আমি মনে মনে ভাবতাম ,"এবার তোমার পড়াশুনা ভাল চলবে , ভাল রেজাল্ট করতে পারবে , তোমার বাবার জীবন ধন্য হবে । "  ক্লাস টেন। আমি নিয়মিত ক্লাসে আসতাম । একটু ও ভাল লাগতনা । কেমন যেন একা একা লাগত নিজেকে । সে চলে যাবার পর আমার কিছুই ভাল লাগতনা । আবার ভাবতাম মনে মনে ," সে ত ভাল রেজাল্ট এর জন্য বাইরে গেছে ।" তাই আমি ও উঠে পড়ে লাগলাম উদ্দেশ্য ভাল রেজাল্ট করা ।   দেখতে দেখতে সময় ঘনিয়ে এল এস.এস.সি পরীক্ষার । ও ইতোমধ্যে বাইরে থেকে চলে এসেছে ।  ফেব্রুয়ারিতে আমাদের পরীক্ষা । আমি ভাবলাম, ' আমাদের দুই জনের পরীক্ষা ভাল হবে । '  পরীক্ষা শেষ । ২ মাস পর রেজাল্ট বের হবে । আমি সৃষ্টিকর্তার কাছে প্রার্থনা করতাম যাতে আমাদের দুই জনের রেজাল্ট ই যেন ভাল হয় ।  আজ দুপুর ২.০০ টার সময় রেজাল্ট বের হবে । খুব বিমর্ষ ।  আলহামদুলিল্লাহ! আমার এ+ হয়েছে । তার??????????? সাথে সাথে জিজ্ঞাসা করলাম নিজেকে।  তার ৫ টি বিষয়ে ফেইল ।  আমি বললাম ," আয়েশা!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!" বলতে গিয়ে গলাটা ধরে এল। দেখলাম পায়ের কাছে মাটির কিছু অংশ পানিতে ভেজা। জানি না চোখ দিয়ে কতটা অশ্রু বের হয়েছিল।  তারপর ............  তারপরের ঘটনা আর লিখতে পারবনা ।  শুনলাম তার পিতা তার জন্য পাত্র খুঁজছে।
ঝরে পড়া_Short Film Stories_BD Films Info
"ঝরে পড়া"  
২৩-৯-২০১৫
"প্রাইমারি শেষ করেছি মাধ্যমিকে ভর্তি হয়েই তার সাথে দেখা হবে ভাবিনি প্রাইমারিতে তার ভাল রেজাল্ট ছিল তাই বলে যে মাধ্যমিকে ভাল হবে তার গ্যারান্টি কে দেবে? তার জীবনে সেটাই ঘটেছিল আমি কখনো ভাবিনি তার এমন রেজাল্ট হবে "
" আমাদের প্রেমটা ক্লাস সিক্স থেকে নয় কারণ তখন জানতামই না প্রেম কি জিনিস? ক্লাস এইটে তাকে কিছুটা ভালো লাগতে লাগল বলতে পারবনা সেটা লাভ না অ্যাট্রাকশন কিন্তু ভাবতাম সে আমার জীবনের কিছুটা অংশ জুড়ে রয়েছে ভাবতে ভাবতে কখন যে তাকে আর ও ভাল লাগতে লেগেছে তা বলতে পারবনা ২ বছর তার সাথে ভাল ত দুরের কথা কোন কথাই বলতাম না কেমন যেন মনের মধ্যে ধাড়াক ধাড়াক করত এভাবে চলে গেল ২ টা বছর ক্লাস এইটে তার চেয়ে বেশি পড়া লেখাই ভাল ছিলাম তাই তাকে সাহায্য করতে চাইতাম কিন্তু সে কখনো আমার সাথে কথাই বলতে চাইত না সে ক্লাসের সবার চাইতে আলাদা ছিল ক্লাস এইটে যখন বৃত্তি পরীক্ষা দিলাম তখন তার সাথে কিছুটা মিশতে পেরেছিলাম সে প্রাইমারিতে ভাল ছিল কিন্তু মাধ্যমিকে কি যে হল তার বলতে পারবনা আমার কাছে ফোন ছিলনা তাই তাকে ফোন করতে অনেক কষ্ট হত তার কাছে ফোন ছিল তার সাথে কথা বলতে খুব ভাল লাগত জানি না এতেই মনে হয় প্রেমের বীজ নিহীত ছিল তাকে ফোন করার জন্য কারো ফোন ধার করতাম মনে হত তার সাথে এভাবে সারা জীবন কথা বলে যায় আমার সব চায়তে ভাল লাগত তার সাথে কথা বলতে দেখতে দেখতে আমাদের বৃত্তি পরীক্ষা দরজায় কড়া নাড়ছে পরীক্ষা দিলাম দুই জন ই বৃত্তি পেলাম যদিও আমাদের বৃত্তির ধরণ আলাদা ছিল ক্লাস নাইনে উঠালাম আমার রোল ১ হল তার ২ আমার খুব গর্ভ হত
" আমি ভাল পড়াশুনা করিনি তাই তুমি ভাল রেজাল্ট করেছ" ,সে আমাকে বলত আমি বললাম , " তুমি ভাল পড়শুনা করনি কেন?" ও নিশ্চুপ তার এমন ভঙ্গিতে একটুখানি হাসি খুঁজে পেতাম তার মুখে, তার ঠোঁটে
আমদের জীবনটা এভাবে ভাল চলছিলো হঠাৎ , কি যে হল তার সে কিছু মাসের জন্য বাইরে চলে গেল তার বাবা তাকে বাইরে পাঠিয়েছিল আমি মনে মনে ভাবতাম ,"এবার তোমার পড়াশুনা ভাল চলবে , ভাল রেজাল্ট করতে পারবে , তোমার বাবার জীবন ধন্য হবে "
ক্লাস টেন আমি নিয়মিত ক্লাসে আসতাম একটু ও ভাল লাগতনা কেমন যেন একা একা লাগত নিজেকে সে চলে যাবার পর আমার কিছুই ভাল লাগতনা আবার ভাবতাম মনে মনে ," সে ত ভাল রেজাল্ট এর জন্য বাইরে গেছে " তাই আমি ও উঠে পড়ে লাগলাম উদ্দেশ্য ভাল রেজাল্ট করা
দেখতে দেখতে সময় ঘনিয়ে এল এস.এস.সি পরীক্ষার ও ইতোমধ্যে বাইরে থেকে চলে এসেছে
ফেব্রুয়ারিতে আমাদের পরীক্ষা আমি ভাবলাম, ' আমাদের দুই জনের পরীক্ষা ভাল হবে '
পরীক্ষা শেষ ২ মাস পর রেজাল্ট বের হবে আমি সৃষ্টিকর্তার কাছে প্রার্থনা করতাম যাতে আমাদের দুই জনের রেজাল্ট ই যেন ভাল হয়
আজ দুপুর ২.০০ টার সময় রেজাল্ট বের হবে খুব বিমর্ষ
আলহামদুলিল্লাহ! আমার এ+ হয়েছে তার??????????? সাথে সাথে জিজ্ঞাসা করলাম নিজেকে
তার ৫ টি বিষয়ে ফেইল
আমি বললাম ," আয়েশা!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!" বলতে গিয়ে গলাটা ধরে এল দেখলাম পায়ের কাছে মাটির কিছু অংশ পানিতে ভেজা জানি না চোখ দিয়ে কতটা অশ্রু বের হয়েছিল
তারপর ............
তারপরের ঘটনা আর লিখতে পারবনা
শুনলাম তার পিতা তার জন্য পাত্র খুঁজছে


SHARE THIS

0 comments:

Write a comment